How can Earm money viainternet from Bangladeshi Skill Worker or New User

 The On Demand Global Workforce - oDesk

The On Demand Global Workforce - oDesk

The On Demand Global Workforce - oDesk

The On Demand Global Workforce - oDesk


ক্লোজার কমপাইলার সার্ভিস এমন একটি টুল যেটা দিয়ে অনেকগুলি জাভাস্ক্রিপ্টকে একত্রে এনে কমপ্রেশানের মাধ্যমে দ্রুত লোডিংয়ের আয়োজন করা যেতে পারে। আজকাল আমাদের জাভাস্ক্রিপ্টের ব্যবহার বেড়ে গেছে, ওয়ার্ডপ্রেসের অনেক থিম এবং প্লাগিনের কারনে ৪-১০’টি জাভাস্ক্রিপ্ট লোড করাতেই হয়। কিন্তু এতোগুলি স্ক্রিপ্ট লোড হতে সময় লেগে যায় বেশ কিছুটা, ক্লোজার কমপাইলার সার্ভিস দিয়ে আমরা একাধিক জাভাস্ক্রিপ্ট ফাইলকে একটি ফাইলের মধ্যে আনতে পারবো এবং এই পর্যন্ত আমি যতোগুলি পরীক্ষা করেছি তাতে সব জাভাস্ক্রিপ্ট ফাইলের মিলিত সাইজের অর্দ্ধেক সাইজের একটি ফাইল বানিয়ে দিয়েছে। এটি PageSpeed‘এর সাথে একযোগে কাজ করবে।

সরল একটি ওয়েব ইন্টারফেসের মাধ্যমে এই কাজটি সম্পন্ন করতে পারবেন। বর্তমানে ব্লগে যেসব জাভাস্ক্রিপ্ট চলছে তার ইউআরএল দিয়ে দিন এক এক করে, সাধারনভাবে স্ক্রিপ্টগুলি থাকে থিম ডাইরেক্টরির মধ্যে সাবফোল্ডারে, নির্দিষ্ট ইউআরএল ঠিকানাটি দিন এবং Add ক্লিক করুন, এইভাবে একে একে সব জাভাস্ক্রিপ্ট ফাইল যুক্ত করে নিয়ে অপ্টিমাইজেশান লেভেল পছন্দ করুন। পছন্দগুলি পাবেন Whitespace only, Simple এবং Advanced। আপাতত Simple দিয়েই শুরু করা ভালো, তবে বিশদে জানতে এই পাতায় দেখুন।

আপনার ব্লগে কতোগুলি জাভাস্ক্রিপ্ট চলছে?

সাধারনভাবে থিম ফোল্ডারের মধ্যেই /js কিম্বা /javascript নামে ফোল্ডার পাবেন, সেখানেই মূলত সব জাভাস্ক্রিপ্ট ফাইল রাখা থাকে। এই ফোল্ডারের নামের হেরফের হতে পারে, যেমন থিসিস থিম যারা ব্যবহার করছেন, সেখানে /lib/scripts ফোল্ডারে আছে জাভাস্ক্রিপ্ট। এছাড়াও /wp-includes/js/ ফোল্ডার থেকেও প্লাগিন লোড হয়। মোট কতোগুলি এবং কি কি জাভাস্ক্রিপ্ট লোড হচ্ছে সেইটা জানার সবচেয়ে সহজ উপায় ব্রাউজারে ব্লগের প্রধান পাতা এবং যেকোনো একটি পোস্ট পাতা খুলে নিয়ে পেজ সোর্স দেখুন। খুঁজে পেতে যদি অসুবিধা হয়, তাহলে সার্চ করুন “.js” লিখে, এর পরে Next বোতাম চেপে একে একে দেখে নিন সব জাভাস্ক্রিপ্টের ইউআরএল ঠিকানা।

কিভাবে করবেন কমপাইল প্রক্রিয়াটি?

দুটি উপায় আছে। যাদের ব্লগ ইতিমধ্যেই সক্রিয় আছে, তারা উপরের পদ্ধতিতে সব স্ক্রিপ্টের ইউআরএল ঠিকানা একে একে নিয়ে Closure Compiler পাতায় Add A URL পদ্ধতিতে একে একে যুক্ত করে দিতে পারেন। এই পদ্ধতিতে কমপাইলার আপনার ব্লগ থেকে সরাসরি সংগ্রহ করে নেবে আপনার বলে দেওয়া স্ক্রিপ্ট ফাইলগুলি। অন্যথায়, থিমের ফোল্ডার থেকে স্ক্রিপ্ট ফাইল খুলে সবটা কপি করে নিয়ে কমপাইলার পাতায় দেওয়া বাক্সে পেস্ট করে দিতে পারেন। এই পদ্ধতিতে অনেক কপি/পেস্ট করতে হতে পারে।

যেসব স্ক্রিপ্ট ফাইল একেবারেই ধরবেন না

আপনারা জানেন যে গুগল এডসেন্স, গুগল এনালিটিক্স ইত্যাদির জাভাস্ক্রিপ্ট আছে যা গুগল নিজে নিয়ন্ত্রণ করতে পছন্দ করে। আমরা এইসব ফাইলে নিজেদের কর্তৃত্ব ফলাই তা গুগল একেবারেই চায়না। সুতরাং ga.js এবং show_ads.js এই দুটি ফাইল কমপাইলারে দেবেন না। পরিবর্তন না করেও এই দুটিকে কমপাইলারের মাধ্যমে অন্যান্য স্ক্রিপ্টের সঙ্গে একত্রে একটি জাভাস্ক্রিপ্ট ফাইলে নেওয়ায় নিয়মবিরুদ্ধ হিসেবেই গণ্য হবে। যদি গুগল নাও ধরতে পারে, তার পরেও কিছু অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতির সম্মুখিন হতে পারেন, তার একটাই কারন, গুগল তার সার্ভিস আপডেটের সময়ে এইসব ফাইলে কিছু পরিবর্তন করতে পারে যার লাভ আপনি পাবেন না যদি কমপাইলার দিয়ে অন্য একটি ফাইলে নিয়ে নেন স্ক্রিপ্ট। সুতরাং, গুগলের উন্নত সার্ভিস থেকে বঞ্চিত হতে না চাইলে এই দুটি জাভাস্ক্রিপ্ট ফাইলকে গুগলের সার্ভার থেকেই লোড হতে দিন।

থার্ড পার্টি জাভাস্ক্রিপ্ট

আমরা অনেকেই এমন কিছু সার্ভিস ব্যবহার করি যেসবের জাভাস্ক্রিপ্ট সার্ভিস প্রদানকারীর ওয়েবসাইট থেকেই লোড হয়। এইসব ক্ষেত্রে এদের স্ক্রিপ্টের ইউআরএল জেনে নিয়ে কপি করে কমপাইলারে দিতে পারেন (যদি না তাদের নিয়মে এক্সক্লুসিভ ভাবে বারন করা থাকে), তবে এক্ষেত্রে একটু নজর রাখবেন যে থিমের যেসব পিএইচপি ফাইলে procedure call থাকবে সেইখানেও পরিবর্তন করতে হবে যাতে করে দুইবার call না হয় একই জিনিস। আমরা ব্লগের লোডিং টাইমে গতি আনতে চাইছি, একই স্ক্রিপ্ট দুইবার call যেন নাহয় সেদিকেও সমান নজর রাখতে হবে।

কমপাইল কার্য শেষে আপনি পাবেন একটি নতুন জাভাস্ক্রিপ্ট ফাইল। স্বাভাবিকভাবে এর নাম default.js আছে, এই নাম পরিবর্তন করে নিতে পারেন। পূর্বের সকল স্ক্রিপ্ট ফাইলের মিলিত সাইজের হিসেব করুন এবং নতুন ফাইলের সাইজ দেখুন কতোখানি সাইজ কমেছে। এবারে এই ফাইল ব্যবহারের জন্য প্রথমেই ডাউনলোড করে নিন এবং FTP দিয়ে নিজের হোস্টে আপলোড করে রাখুন। থিমের জাভাস্ক্রিপ্টের ফোল্ডারেও রাখতে পারেন। এবারে থিম এডিট করতে হবে, পূর্বের জাভাস্ক্রিপ্টগুলিকে নিষ্ক্রিয় করুন এবং নতুন ফাইলের ইউআরএল লিখে দিন। (পূর্বের জাভাস্ক্রিপ্টগুলির উল্লেখ মুছে না ফেলে নিষ্ক্রিয় করুন ) এবারে থিম ফাইল সেভ করুন এবং ব্রাউজারে ব্লগ লোড করে দেখুন সব ঠিক আছে কিনা। সমস্যা মনে হলেই নিষ্ক্রিয় করা লাইনগুলিকে আবার সক্রিয় করে দিন এবং নতুন ফাইলের লাইনটিকে নিষ্ক্রিয় করে দিন, তাহলেই ব্লগ পূর্বের মতোই লোড হওয়ার কথা।

এই কমপাইলার সার্ভিস দিয়ে সুবিধা যেটুকু হবে তা সাধারন চোখে হয়তো ধরা নাও যেতে পারে। তবে অঙ্কের বিচারে লোডিং টাইমে গতি আসবেই কিছুটা। ভালোভাবে বোঝার জন্য আগে ওয়েবমাস্টার টুলসে গিয়ে পেজস্পিড দিয়ে গতি নির্ধারন করে নিন, তার পরে উপরের পদ্ধতি সেরে নিয়ে আবার পেজস্পিড চালিয়ে দেখুন কিছুটা সুবিধা হয়েছে কিনা।

[অতিথি পোস্ট] আপনি কি অনলাইন থেকে আয় করতে চান ?

লিখেছেন তাওহিদুল ইসলাম বিভাগ অতিথি পোষ্ট, ইন্টারনেটে আয়ের কৌশল, ফ্রীল্যান্সিং

বর্তমান সবচেয়ে আলোচিত টপিক হলো ফ্রিল্যান্সিং। ফ্রিল্যান্সিং নিয়ে নানান মানুষের নানান জল্পনা কল্পনা আছে। কেউ আছে শুধু স্বপ্নই দেখে যায়, আহা কবে যে ফ্রিল্যান্সিং থেকে টাকা পাবো, আবার কেউ আছে সে তার স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করে। এমনই কিছু সেরা ফ্রিল্যান্সারদের কিছুদিন আগে বেসিস সফ্ট এক্সপো সেরা ফ্রিল্যান্সার সম্মানানা প্রদান করেছে। বাংলাদেশ ফ্রিল্যান্সিং দিক দিয়ে আস্তে আস্তে উন্নতির শিখরে পৌছাচ্ছে, কিন্তু এখনও অনেকের মধ্যে ফ্রিল্যান্সিং নিয়ে অজ্ঞতা রয়ে গেছে। এই অজ্ঞতা দূরীকরণের জন্য অনেক প্রতিষ্ঠান নানান রকম সেমিনারের আয়োজন করেছে। তারা কিছু টাকার বিনিময়ে সেমিনারের আয়োজন করে লেকচার দিয়ে যাচ্ছে। এখান থেকে কেউ কেউ আগ্রহ নিয়ে সফলও হচ্ছেন। আমরাও চাই সফল হতে, বাংলাদেশকে ফ্রিল্যান্সিং এর দিক দিয়ে প্রথম কাতারে নিয়ে যেতে।

আমি দেখেছি – বেশির ভাগ মানুষের মধ্যেই ফ্রিল্যান্সিং নিয়ে ভুল ধারনা কাজ করে – তারা চায় চটপট কাজ শিখে ঝটপট আয় করতে, এটাতো আদৌ সম্ভব না। অনেক পাঠক হয়ত আমাকে চেনেন আবার হয়ত অনেকে আমার নামই শুনেননি। আমি এমন বিশেষ কেউ নই যে আমাকে চিনতেই হবে। তবুও প্রথমে আমি আমার ছোট একটু পরিচয় দেই। আমি তাওহিদুল ইসলাম, ইন্টারনেটে একটু আধটু লেখালেখে করি আর গত দেড় বছর যাবৎ odesk.com এ ফ্রিল্যান্সিং এর কাজ করি। আজ আমি নতুনদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং বিষয়ক কিছু কথা বলবো, ভালো লাগলে অনুসরন করবেন।

সবাই অনলাইন থেকে টাকা আয় করতে পারে, তবে এখানে একটি ‘কিন্তু’ আছে। প্রথম প্রশ্ন হচ্ছে, আপনি কতটা মোটিভেটেড বা এ ব্যাপারে কতোটা উৎসাহিত? এটাই আসলে মূল ব্যাপার। এক্ষেত্রে তিনটা গুণ থাকা দরকার। ১. আপনি কি শিখতে পারেন? ২. আপনি কি কাজ করতে পারেন? এবং ৩. আপনি কি অপেক্ষা করতে পারেন? এ সবগুলো প্রশ্নের উত্তর যদি ‘হ্যাঁ’ হয়, শুধু তখনই একজন সফলতার দ্বারপ্রান্তে পৌঁছতে পারবেন।

-জিন্নাত উল হাসান

আমি মূলত odesk.com কে ফলো করেই আপনাদের কিছু কথা বলবো:

• প্রথমেই আপনাকে অবশ্যই একটু ভালো ইংরেজী জানতে হবে।

• ভালভাবে ইন্টারনেটের ব্যবহার যেমন ওয়েব সার্চিং, বিভিন্ন ফোরামে এ্যাকাউন্ট খুলতে পারা ইত্যাদি চালানো জানতে হবে।

• কিছুটা ওয়েব ডিজাইন শিখলে খুবই ভাল হয়। বাংলায় ওয়েব ডেভেলপিং নিয়ে অনেক সাইট আছে, সেগুলো পড়া শুরু করতে পারেন।

• বিশেষ করে WordPress এর Thesis Themes এর কাজ শিখলে বেশি ভালো ফল পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

• বিভিন্ন ফ্রি ডোমেইন, ফ্রি হোস্টিং নিয়ে নিজেই তাগিদে বিভিন্ন সাইট ডিজাইন করতে থাকুন। এগুলো আপনার পোর্টফোলিও বানাতে ভালো ফল দেবে।

• সঠিক তথ্য দিয়ে আপনার প্রোফাইল বানান।

• প্রোফাইলকে শক্তিশালী করতে প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষন, টেস্টিমোনিয়াল ইত্যাদি সংগ্রহ করুন।

• odesk.com এ বিভিন্ন বিষয়ের উপর পরীক্ষা দেয়ার সুযোগ আছে, পছন্দের বিষয়গুলোতে পরীক্ষা দিন।

• প্রতিদিন অন্তত ২-৪ টা জব এ্যাপ্লাই করুন।

• কভার লেটার অর্থাৎ দরখাস্ত সব বায়ারের কাছে একই কপি-পেষ্ট করবেন না। কাজের ধরন দেখে কভার লেটার পরিবর্তন করুন এবং বায়ারের কাছে পাঠান।

• নিয়মিত মেসেজ চেক করুন।

• অবশ্যই নতুন অবস্থায় ফিক্সড কাজে এ্যাপ্রাই করা উচিৎ।

• কাজ পাওয়ার ক্ষেত্রে সময় নিয়ন্ত্রনটা বেশি জরুরী। সময়ের আগেই শেষ করতে চেষ্টা করবেন।

• জব এ্যাপ্লাই করার পর বায়ারের কাছ থেকে কোন জবাব বা ইন্টারভিউ না পেলে ধৈর্য্যহারা হবেন না। ধৈর্য্য এবং সময় নিয়ন্ত্রন ফ্রিল্যান্সিং এর জন্য সবচেযে বেশি জরুরী।

• odesk.com এ দুই ভাবে কাজ হয়, একটা হলো ফিক্সড অর্থাৎ কাজ শেষে পেমেন্ট। আর আরেকটা আওয়ারলি অর্থাৎ কাজ করতে থাকলে প্রতি ঘন্টায় নির্দিষ্ট পরিমান পেমেন্ট হবে, প্রথম দিকে ফিক্সড কাজের বেশী এ্যাপ্লাই করা উচিৎ।

আপনারা চাইলে odesk.com নিয়ে ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল লিখতে পারি।

পরিশেষে আমার মনে হয় ওডেস্ক এবং ফ্রি ল্যান্সিংয়ের এ বিষয়গুলো ফলো করলে তিন মাসের মধ্যেই সফল হওয়া সম্ভব। সবশেষে পরবর্তী বছরের বেসিস সফ্ট এক্সপো সেরা ফ্রিল্যান্সার সম্মানানায় আপনার নাম দেখতে চাই এই কামনায় আজকের এই লেখাটি শেষ করলাম।

ধন্যবাদ।

(collected by internet)




Post a Comment